Home / ধর্ম চিন্তা / ধর্মে গরু বনাম ধর্মীয় গুরু

ধর্মে গরু বনাম ধর্মীয় গুরু

তুলনামূলক পড়াশুনা মনের খোরাক দেয়। ছোট বেলায় কেবল পরীক্ষায় ভালো নাম্বার পাওয়ার আশায় গরু রচনা শিখেছিলাম। এই গরু নিয়ে এতো কথা আছে তখন বুঝতে পারিনি। এই গরু ফেক্টটা প্রতিটি ধর্মেই আছে। একটা অন‌্যটার চেয়ে কম নয়। আমরা যদিও মনে করি হিন্দুদের বেলায় গরু ফেক্টটা বেশি। আসলেই ঠিক তেমনটি নয়। প্রতিটি ধর্মেই গরু ফ‌্যাক্ট বিদ‌্যমান।
মুসলিমঃ
মুসলমানদের পবিত্র ধর্মীয় গ্রন্থ কুরআনুল করিমের সবচেয়ে বড় সূরাটির নাম গরু। আল বাকারা। বাকারাহ মানে গাভী। গাভী তো গরুই, তাই না? এটি পবিত্র কুরআনের ২ নম্বর সূরা, এর আয়াত সংখ্যা ২৮৬ টি এবং এর রূকুর সংখ্যা ৪০ টি। এই সূরার ৬৭ থেকে ৭৩ নম্বর আয়াত পর্যন্ত হযরত মুসা (আঃ) এর সময়কার বনি ইসরাইল এর গাভী কুরবানীর ঘটনা উল্লেখ রয়েছে। সবচেয়ে মজার ব‌্যাপার হচ্ছে পবিত্র কুরআনের সবচেয়ে বড় আয়াতটিও সূরা আল বাকারায়। ২৮২ নং আয়াত।
খ্রিষ্টানঃ
বাইবেলেও গরু নিয়ে আলোচনা আছে। আদিপুস্তক 41 তে। আমি হুবুহু তুলে দিচ্ছি-
১. দু’বছর পর ফরৌণ একটা স্বপ্ন দেখলেন। দেখলেন তিনি নীল নদীর ধারে দাঁড়িয়ে রয়েছেন।
২. স্বপ্নে নদী থেকে সাতটা গরু উঠে এসে ঘাস খেতে লাগল। গরুগুলো ছিল হৃষ্টপুষ্ট, দেখতেও ভালো।
৩. এরপর নদী থেকে আরও সাতটা গরু উঠে এসে পাড়ের হৃষ্টপুষ্ট গরুগুলোর গা ঘেঁসে দাঁড়াল।
৪. কিন্তু ঐ গরুগুলো রোগা ছিল, দেখতেও অসুস্থ।
৫. সেই সাতটা অসুস্থ গরু সাতটা হৃষ্টপুষ্ট গরুগুলোকে খেয়ে ফেলল। তখনই ফরৌণের ঘুম ভেঙ্গে গেল।
হিন্দুঃ
হিন্দুদের আদিধর্মীয় গ্রন্থ বেদে আঘ্ন্যা, অহি ও অদিতি হচ্ছে গরুর সমপদ । আঘ্ন্যা মানে যাকে হত্যা করা উচিত নয় । অহি মানে যার গলা কাটা বা জবাই করা উচিত নয় । অদিতি মানে যাকে টুকরো টুকরো করা উচিত নয় ।
বেদ:১/১৬৪/৪৩, বেদ:৫/২৯/৮, বেদ:১/১৬২/৩, বেদ:৪/১/৬, বেদ:১০/৮৯/১৪ সহ বেদের অনেক স্থানে গরুর মাংস খাওয়া নিষিদ্ধ উল্লেখ আছে বলা হয়। অনেকেই আবার অনুবাদে ভিন্ন কথাও উল্লেখ করেন। যেমন ঋগ্বেদ ১০/৮৬/১৩ তে গরু রান্না করার কথা অনুবাদ করেছেন। ঋগ্বেদ ১০/৮৬/১৪ তে ইন্দ্রের জন্য গোবৎস উৎসর্গ করা হয়েছে বলে অনুবাদ করেছেন। মহাভারতের বন পর্ব, খন্ড ২০৭, কিশোরী মোহন গাংগুলির অনুবাদে গরুর মাংস খাওয়ার কথা উল্লেখ করা হয়। Collected works of Swami Vivekananda, Advaita Asharama,1963, Vol III, page 172 তে স্বামী বিবেকানন্দ গরুর মাংস খাওয়ার বিষয়ে উল্লেখ করেছেন।
ধর্মে এই গরু বিষয়ে ধর্মীয় গুরুদের নানা রকম বিশ্লেষণের কারণে মাঝে মাঝে আমরা নিজেরাই গরু হয়ে যাই। সাবধান, ধর্মে এই গরু ফ‌্যাক্ট এর কারণে নিজেরা যেন গরু হয়ে না যাই। নিজেরা মানুষ থাকি। গরু থাকুক গরু। আর গুরু কখনো গরু হলেও সেটি টাইপিং মিসটেক কিংবা প্রিন্টিং মিসটেক হিসেবেই ধরে নেব। গুরুরাও গুরু থাকুক।

Check Also

স্বপ্ন- দেখার নাকি চাপিয়ে দেয়ার

মোয়াজ্জেম হোসাইন সাকিল ঃ স্বপ্ন। নিজেকে নিয়ে হোক আর অন‌্যকে নিয়ে হোক। সেটি স্বপ্ন। কলেজ জীবনে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *